Jump to content
IslamicTeachings.org
MUSLIM WOMAN

রমজান-উত্তর জীবনে ইবাদত জারি রাখা

Recommended Posts

Asalamu'alaikum

 

 

রমজান-উত্তর জীবনে ইবাদত জারি রাখা

 

 

 

যাযাদি রিপোর্ট

 

 

 

নশ্বর পৃথিবীর মোহ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়ে অবিনশ্বর আখিরাতের প্রতি ধাবিত করার মাস রমজানুল মুবারকের আজ ২৫তম দিবস। আর মাত্র কয়েকদিন পর রমজান আমাদের কাছ থেকে বিদায় নেবে। নিয়মানুবর্তিতার এই বিশেষ মাস থেকে বেরিয়ে আমরা আবারো আমাদের ী গতানুগতিক জীবনে ফিরে যাবে। তাক্বওয়ার দাবি, জীবন পরিচালনা, আচরণ ও লেনদেনে সাবধানতা অবলম্বন, সমাজ ও সামষ্টিক কর্মকা-ে শুদ্ধতা ও স্বচ্ছতা রক্ষা, দায়িত্বের অনুভূতি এবং সব কাজে আল্লাহকে স্মরণ রাখার যে শিক্ষা নিয়ে রমজান মাস আগমন করেছিল, রমজান-উত্তর জীবনেও তার প্রতিফলন ঘটাতে হবে। হাদিসে এসেছে, আল্লাহ তাআলা আপনাদের জন্য রমজানের শেষের দিকে কিছু বাড়তি ইবাদতের বিধান দান করেছেন। সেগুলো তাঁর নৈকট্য লাভের পথকে সুগম করবে এবং ঈমানকে বৃদ্ধি করবে।

 

 

 

 

 

আল্লাহ তাআলা আরো নির্দেশ দিয়েছেন, সাদাকাতুল ফিতর, তাকবীর ও ঈদের সালাতের। মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন, আর যাতে তোমরা সংখ্যা পূরণ কর এবং তিনি তোমাদেরকে যে হিদায়াত দিয়েছেন, তার জন্য আল্লাহর বড়ত্ব ঘোষণা কর এবং যাতে তোমরা শোকর কর। (সূরা বাক্বারা: ১৮৫) রমজান শেষ হওয়ার সময় তাঁর বড়ত্ব প্রকাশার্থে তাকবীর পাঠ করে থাকে। তাকবীর, তাহমীদ ও তাহলীলের গুঞ্জরণের মাধ্যমে আকাশ-বাতাস মুখরিত করে তুলে। তারা আল্লাহ তাআলার রহমত কামনা করে ও তাঁর আযাবকে ভয় করে।

 

 

 

 

 

আল্লাহ তাআলা বলেন, 'বল, আল্লাহর অনুগ্রহ ও রহমতে। সুতরাং এ নিয়েই যেন তারা খুশি হয়। এটি যা তারা জমা করে তা থেকে উত্তম। (সূরা ইউনুস: ৫৮) রমজান মাস ছিল মুসলমানদের জন্য মহান আল্লাহর বড় একটি নেয়ামত। তাদের জন্য তাঁর দেয়া বড় একটি সুযোগ। ঈমানের সঙ্গে সাওয়াবের আশায় সম্পাদিত দিনের রোজা ও রাতের নামাজ ছিল কৃত গুনাহের কাফ্ফারা ও ভবিষ্যতে পাপ থেকে মুক্ত থাকার প্রশিক্ষণস্বরূপ। রমজান মাস শেষ হয়ে গেলেও এ প্রশিক্ষণ যেন আমাদের জীবনে জারি থাকে এজন্য হযরত মুহাম্মদ (সা) তাগিদ দিয়েছেন।

 

 

 

 

আল্লাহ তাআলা বলেন, 'আর ইয়াকিন (মৃত্যু) আসা পর্যন্ত তুমি তোমার রবের ইবাদত কর। সূরা আলে ইমরানের ১০২ নাম্বার আয়াতে ইরশাদ হয়েছে, হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহকে ভয় কর যথাযথভাবে। আর (পরিপূর্ণ) মুসলমান না হয়ে মৃত্যুবরণ করো না। নবী করিম (সা) ইরশাদ করেন, মানুষ মারা গেলে তার আমল বন্ধ হয়ে যায়। তাই মুমিন ব্যক্তি সময় থাকতেই আমল-ইবাদত অব্যাহত রাখে। সুতরাং রমজান মাস শেষ হয়ে গেলেও প্রকৃত মুমিন ব্যক্তির রোজার ইবাদত কিন্তু শেষ হবে না।

 

 

এটি সারাবছর চলতে থাকবে। যেমন, শাওয়াল মাসের ছয় রোজা। আবু আইউব আনসারী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, নবী করিম (সা) বলেছেন, যে ব্যক্তি রমজান মাসের রোজা রাখল অতঃপর শাওয়াল মাসে ৬টি রোজা রাখল, সে যেন সারাজীবনই রোজা রাখল। (মুসলিম) প্রতি মাসে তিন দিনের রোজা এ ব্যাপারে রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেন, রমজান মাস পর্যন্ত প্রত্যেক মাসে তিন দিন রোজা রাখা সারাজীবন রোজা রাখার ন্যায়। (মুসলিম) আবু হুরায়রা (রা) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমার বন্ধু মুহাম্মদ (সা) আমাকে প্রত্যেক মাসে তিন দিন রোজা রাখার উপদেশ দিয়েছেন। এ তিন দিনের রোজা আইয়ামে বীযে রাখা উত্তম। আইয়ামে বীয হলো, প্রতি চন্দ্র মাসের ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখ। (মুসলিম) এ ব্যাপারে নবী করিম (সা) আবু যর রাদিয়াল্লাহু আনহুকে বললেন, হে আবু যর! তুমি প্রতি মাসের তিন দিন রোজা রাখলে ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখে রোজা রাখবে। (নাসাঈ) আরাফার দিনের রোজা নবী করিম (সা) কে আরাফার দিন রোজা রাখার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বললেন, এ দিনে রোজা রাখলে পূর্ববর্তী ও পরবর্তী বছরের গুনাহসমূহ ক্ষমা করে দেয়া হয়।

 

 

 

 

 

আশুরার দিনের রোজা আশুরার দিনের রোজার ফজিলত সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি উত্তরে বলেন, এ দিনের রোজা রাখলে পূর্ববর্তী বছরের গুনাহসমূহ ক্ষমা করে দেয়া হয়। মুসলিম শরীফে আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাাহু আনহু থেকে বর্ণিত এক বর্ণনায় এসেছে, নবী করিম (সা) কে প্রশ্ন করা হয়েছিল, রমজান মাসের পর কোন রোজা সবচে উত্তম?

 

 

 

 

উত্তরে রাসূল (সা) বললেন, মহররম মাসের রোজা। শাবান মাসের রোজা সহীহ বুখারি ও মুসলিমে আয়েশা (রা) আনহা থেকে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা) কে রমজান মাসের রোজা ছাড়া আর কোনো মাসে পূর্ণ মাস রোজা রাখতে দেখিনি। আর শাবান মাসের চেয়ে অন্য কোনো মাসে এত বেশি পরিমাণে রোজা রাখতে দেখিনি। রমজান মাসে দিনের রোজার মতো রাতের নামাজও আল্লাহ তাআলার বিশেষ নেয়ামত। রমজান শেষ হয়ে গেলে যেমন প্রকৃত মুমিন বান্দাদের রোজার ধারা শেষ হয়ে যায় না। বরং বিভিন্নভাবে অব্যাহত থাকে। অনুরূপভাবে রমজানের রাতগুলো শেষ হয়ে গেলেও প্রকৃত মুমিন বান্দাদের রাতের ইবাদত-নামাজ, দোয়া, জিকির এবং বাস্তবজীবনে রোজার শিক্ষার প্রতিফলন ঘটে।

 

http://www.jjdin.com...pe_id=1&index=6

Share this post


Link to post
Share on other sites

Create an account or sign in to comment

You need to be a member in order to leave a comment

Create an account

Sign up for a new account in our community. It's easy!

Register a new account

Sign in

Already have an account? Sign in here.

Sign In Now

×