Jump to content
IslamicTeachings.org
MUSLIM WOMAN

ক্ষমা ও চোখের পানি

Recommended Posts

:assalam:

 

 

ক্ষমা ও চোখের পানি

 

 

 

 

 

 

মুহাম্মদ যাইনুল আবিদীন

 

মুক্তির এই দশকে মুমিনের সবচেয়ে বড় আরাধনা হবে ভয়াবহ দোজখের আগুন থেকে নিজেকে যে কোনো মূল্যে মুক্ত করে আনা। তাছাড়া আল্লাহতায়ালা বান্দাকে এই সুযোগদানের জন্যই সাজিয়েছেন রমজানের এই আসর। সাহাবি হজরত আবু সাঈদ খুদরী (রা.) বলেন, হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : রমজানের প্রতিটি দিনে ও রাতে আল্লাহতায়ালা দোজখের অনেক কয়েদিকে মুক্তি দিয়ে থাকেন। আর রমজানের প্রতিটি রাতে ও দিনে প্রত্যেক মুসলমানের একটি করে দোয়া কবুল করা হয়। [বাযযার]

 

 

 

 

 

নিজেকে দোজখের নির্মম শাস্তি থেকে রক্ষা করার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হলো আল্লাহর ভয়ে বিসর্জিত অশ্রু। হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত একটি হাদিসে আছে_ হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : দোহিত দুধ স্তনে ফিরে না যাওয়া পর্যন্ত সেই ব্যক্তি দোজখে যাবে না, যে আল্লাহর ভয়ে কেঁদেছে। [তিরমিযীর সূত্রে রিয়াযুস সালেহীন-হাদিস :৪৪৮] দুধ একবার দোহনের পর কি আর স্তনে ফিরে যাওয়া সম্ভব? এটা আমাদের দেখা সত্য। ধনী-গরিব, সাদা-কালো আরব-আজম_ সব শ্রেণীর সব মানুষ এই সত্য একইভাবে দেখে। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সবার জানা ও দেখা উপমা দিয়ে বলেছেন_ এটা যেমন তোমাদের দেখা অকাট্য বাস্তবতা_ দুধ একবার দোহিত হলে আর স্তনে ফিরে যায় না, যেতে পারে না; তেমনি আল্লাহতায়ালার দয়া ও করুণার অকাট্য বিধান হলো. তাঁর ভয়ে যে কাঁদে, তাকে তিনি দোজখের আগুনে পোড়াবেন না। আল্লাহ বিশ্বাসী যে কোনো মুসলমানের জন্য এ সান্ত্বনা অসামান্য।

 

 

 

 

এ সুবাদে আরেকটি হাদিস এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে। প্রখ্যাত সাহাবি আবু উমামা আলবাহেলী (রা.) বলেন, হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : দুটি ফোঁটা আর দুটি পদাঙ্কের চাইতে প্রিয় কোনো বিষয় আল্লাহতায়ালার কাছে নেই। ফোঁটা দুটি হলো, আল্লাহর ভয়ে বিগলিত অশ্রুর ফোঁটা, আর আল্লাহর পথে প্রবাহিত রক্তের ফোঁটা। প্রিয় পদাঙ্ক দুটি হলো_ (কাফেরদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে) আল্লাহর পথে চলা পায়ের চিহ্ন, আর আল্লাহ কর্তৃক আরোপিত কোনো ফরজ সম্পাদনে চালিত পদাঙ্ক। [তিরমিযীর সূত্রে রিয়াযুস সালেহীন হাদিস :৪৫৫]

 

 

 

মনে রাখতে হবে, এই জগতে দোজখের আগুন থেকে মুক্তির পরোয়ানা পেতে হলে চোখের পানির বিকল্প নেই।

 

 

 

প্রিয়তম নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কত দরদভরা কণ্ঠে বলেছেন, আমি যা জানি তোমরা যদি তা জানতে, তাহলে হাসতে কম আর কাঁদতে বেশি। এ কথা শোনার পর সাহাবায়ে কান্নায় মুখ ঢেকে ফেলেন। [বুখারী ও মুসলিমের সূত্রে, ঐ ৪৪৭] আগামী রাত রমজানের পঁচিশতম রজনী। হতে পারে শবেকদরের রাত। এই রাত হোক দোজখের ভয়ে কান্নাপ্লাবিত রাত। আল্লাহর ভয়ে প্রবাহিত চোখের জল ভাসিয়ে নিয়ে যাক আমাদের জীবনের সব পাপতাপ আর অবাধ্যতার সমূহ পঙ্কিলতা। হে আল্লাহ, তুমি কবুল করো!

 

 

http://www.samakal24.com/details.php?news=13&action=main&option=single&news_id=284099&pub_no=1140

Share this post


Link to post
Share on other sites

Create an account or sign in to comment

You need to be a member in order to leave a comment

Create an account

Sign up for a new account in our community. It's easy!

Register a new account

Sign in

Already have an account? Sign in here.

Sign In Now

×